২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স ১ম বর্ষ ও বিবিএ প্রোগ্রামে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে। ২০টি সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয় এর সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার ন্যায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১৯, ২৬ জুন ও ৩ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে।

 


ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদন শুরু = ০১ এপ্রিল ২০২১ইং
ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদন শেষ = ১৫ এপ্রিল ২০২১ইং
ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদনের রেজাল্ড = ২৩ এপ্রিল ২০২১ইং
চূড়ান্ত প্রার্থীরা আবেদন করবেন = ২৪ এপ্রিল ২০২১ইং
চূড়ান্ত প্রার্থীর আবেদন শেষ = ২৫ মে ২০২১ইং
চূড়ান্ত পর্যায়ের আবেদন ফি = ৫০০ টাকা।

 


গুচ্ছ পদ্ধতিতে প্রার্থীরা মেধাক্রম অনুসারে ২০টি সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয়ের যে কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাবে। ৩১টি কেন্দ্রে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রত্যেক শিক্ষার্থীরা নূন্যতম পাঁচটি কেন্দ্র তাদের পছন্দ তালিকার নাম এন্ট্রি করতে পারবে।
মানবিক বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে = ১৯ জুন ২০২১ইং
বাণিজ্য বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে = ২৬ জুন ২০২১ইং
বিজ্ঞান বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে = ০৩ জুলাই ২০২১ইং
ভর্তির যোগ্যতাঃ
২০১৭/২০১৮ সালের এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্র/ছাত্রীরা এবং ২০১৯/২০২০ সালের এইচএসসি/মাদ্রাসা/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবে। আবেদনের ক্ষেত্রে এসএসসি/এইচএসসি উভয় পরীক্ষায় সর্বোচ্চ জিপিএ ৮.০০ এবং সর্বনিম্ন ৭.৫০ জিপিএ পেতে হবে। কোন বিষয়ে ৩.০০ এর কম জিপিএ পেলে ভর্তি পরীক্ষার জন্য ছাত্র/ছাত্রীরা আবেদন করতে পারবে না।
ইউনিট-১ (বিজ্ঞান শাখা) বিজ্ঞান, মাদ্রাসা (বিজ্ঞান) ভোকেশনাল এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্র/ছাত্রীরা ইউনিট-১ এ আবেদন করতে পারবে তাবে প্রতিটি বিষয়ে নূন্যতম ৩.০০ গ্রেড থাকতে হবে ৩.০০ এর কম জিপিএ প্রাপ্ত ছাত্র/ছাত্রীরা ইউনিট-১ ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবে না।
ইউনিট-২ (মানবিক শাখা) ছাত্র/ছাত্রীরা এসএসসি/এইচএসসি/মাদ্রাসা/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণরা ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে সেক্ষেত্রে তাদের সর্বোচ্চ জিপিএ ৭.৫০ থাকতে হবে। তাবে প্রতিটি বিষয়ে নূন্যতম ৩.০০ গ্রেড থাকতে হবে ৩.০০ এর কম জিপিএ প্রাপ্ত ছাত্র/ছাত্রীরা ইউনিট-১ ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবে না।
ইউনিট-৩ (বাণিজ্য শাখা) প্রার্থীরা এসএসসি/এইচএসসি পাস ছাত্র/ছাত্রীরা আবেদন করতে পারবে এবং উভয় পরীক্ষায় সর্বোচ্চ জিপিএ ৭.৫০ থাকতে হবে ও সর্বোচ্চ জিপিএ হতে হবে ৭.৫০। তাবে প্রতিটি বিষয়ে নূন্যতম ৩.০০ গ্রেড থাকতে হবে ৩.০০ এর কম জিপিএ প্রাপ্ত ছাত্র/ছাত্রীরা ইউনিট-১ ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবে না।
সংগীত, চারুকলা, নাট্যকলা, ফিল্ম এন্ড টেলিভিশন বিভাগে ছাত্র/ছাত্রীদের এসএসসি/এইচএসসি উভয় পরীক্ষায় সর্বোচ্চ জিপিএ থাকতে হবে ৭.০০ এবং প্রতিটি বিষয়ে নূন্যতম জিপিএ হতে হবে ২.৫০ পয়েন্ট। তবে এইচএসসিতে বাংলা এবং ইংরেজী বিষয়ে নূন্যতম বি-গ্রেড থাকতে হবে।
ইউনিট ভিত্তিক শাখাগুলো ভর্তি পরীক্ষার বিষয়গুলো হলো নিম্নরুপ:
ইউনিট-১ (বিজ্ঞান শাখা) পদার্থ বিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত অথবা জীববিজ্ঞান।
ইউনিট-২ (মানবিক শাখা) বাংলা, ইংরেজী, বাংলাদেশ ও সমসাময়িক বিশ্ব (শিল্প সাহিত্য অথবা আর্থ-সামাজিক বিষয়ে বাংলা এবং ইংরেজীতে সংখ্যক বাক্য লিখতে হবে এবং সাধারণ বুদ্ধিমত্তা
ইউনিট-৩ (বাণিজ্য শাখা) হিসাব বিজ্ঞান, ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা, ব্যবসায় নীতি ও প্রয়োগ এবং গাণিতিক বুদ্ধিমত্তা।
পরীক্ষার নম্বর বন্টন:
লিখিত পরীক্ষা = ৭২ নম্বর
এসএসসি থেকে = ১২ নম্বর
এইচএসসি থেকে = ১৬ নম্বর
মোট = ১০০ নম্বর
সংগীত, চারুকলা, নাট্যকলা, ফিল্ম এন্ড টেলিভিশন-এ ৪টি বিভাগে সম্মিলিতভাবে কোন প্রকার লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হবে না। বিষয়ভিত্তিক, ব্যবহারিক ও মৌলিখ পরীক্ষা নিয়ে তাদের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে।
সংগীত, চারুকলা, নাট্যকলা, ফিলন্ম এন্ড টেলিভিশন-এ নম্বর বন্টন যেভাবে প্রকাশ করা হবে।
এসএসসি থেকে = ২০ নম্বর
এইচএসসি থেকে = ৩০ নম্বর
ব্যবহারিক এবং মৌখিক থেকে = ৫০ নম্বর
মোট = ১০০ নম্বর
মেধাতালিকা প্রস্তুত:
ভর্তি পরীক্ষার এমসিকিউ এবং এসএসসি/এইচএসসি পরীক্ষা থেকে প্রাপ্ত নম্বর নিয়ে মেধাতালিকা প্রস্তুত করা হবে। মেধা তালিকা থেকে উত্তীর্ণ ছাত্র/ছাত্রীরা তাদের পছন্দ বিষয়ভিত্তিক বিষয়ে ভর্তি হতে পারবে। কোন প্রকার ভুলত্রুটি আবেদন ভর্তি পরীক্ষার জন্য গ্রহণযোগ্য হবে না।
ভর্তি হবার জন্য ছাত্র/ছাত্রীদের যে সকল প্রয়োজনীয় কাগজপত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে জমা দিতে হবে।
পরীক্ষা হলে প্রত্যক্ষেকক দ্বারা স্বাক্ষরিত প্রবেশপত্র।
সম্প্রতি তোলা চারকপি পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি।
অনলাইন হতে প্রিন্টকৃত ভর্তি ফরম।
জন্মনিবন্ধন সনদ।
এসএসসি/এইচএসসি পরীক্ষার মূল মার্কসীট।
প্রশংসাপত্র এবং সনদপত্রের মূল কপি জমা দিতে হবে।

মন্তব্য