২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে  সম্মান ১ম বর্ষ ভর্তির অনলাইনের প্রাথমিক আবেদন আগামী ১৫ই এপ্রিল থেকে শুরু হবে। রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যায়ে সম্মান ১ম বর্ষ ভর্তি, ভর্তির আবেদন, ভর্তির যোগ্যতা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় ৫টি বিভাগ রয়েছে। রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির বিস্তারিত বিবরণ নিম্নে প্রদত্ত হলো। ২০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার মধ্যে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ও গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হবে।

 


রবীন্দ্র সংগীত বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির যোগ্যতা:
২০১৭/২০১৮ সালের এসএসসি/সমমান এবং ২০১৯/২০২০ সালের এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীরা ভর্তির জন্য অনলাইনে আবেদন করতে পারবে।
আবেদন করার জন্য এসএসসি/এইচএসসিতে নূন্যতম জিপিএ ব্যবসা ও মানবিক শিক্ষা শাখায় (৪র্থ বিষয়সহ) উভয় পরীক্ষায় ৩.০০ সহ মোট জিপিএ ৬.০০ পেতে হবে।
বিজ্ঞান শাখায় মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় আলাদাভাবে নূন্যতম জিপিএ ৩.০০ (৪র্থ বিষয়সহ) সর্বমোট জিপিএ ৬.৫০ থাকতে হবে। কোনো অবস্থায় এসএসসি/এইচএসসি পরীক্ষায় নূন্যতম জিপিএ ৩.০০ এর কম প্রাপ্ত প্রার্থীরা ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে না। মানবিক ও বাণিজ্য শাখায় ছাত্র/ছাত্রীদের জন্য এসএসসি ও এইচএসসি উভয় পরীক্ষায় নূন্যতম ৩.০০ সহ সর্বমোট ৬.৫০ জিপিএ পেতে হবে।

 


ইউনিট ভিত্তিক বিভাগ ও আসন সংখ্যা:

ইউনিট বিভাগ আসন সংখ্যা
কলা অনুষদ রবীন্দ্র অধ্যয়ন বিভাগ ৩০ জন
কলা অনুষদ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যয়ন বিভাগ ৩৫ জন
সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ অর্থনীতি বিভাগ ৩৫ জন
ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগ ৩৫ জন
সংগীত ও নৃত্যুকলা সংগীত বিভাগ ২০ জন

অনলাইনে ভর্তির আবেদনের তারিখ = ১ এপ্রিল ২০২১
অনলাইনে ভর্তির আবেদনের শেষ তারিখ = ১৫ই এপ্রিল ২০২১
প্রাথমিক ভর্তি পরীক্ষার রেজাল্ড = ২৩ এপ্রিল
প্রবেশপত্র ডাউনলোডের তারিখ =
ভর্তির ফিস = ৬০০ টাকা।

ভর্তি পরীক্ষার তারিখ = ১৯, ২৬ জুন এবং ৩ বা ১০ জুলাই ২০২১ইং।

ভর্তি পরীক্ষার নম্বর বন্টন:
২০০ নম্বরের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ভর্তি পরীক্ষা এমসিকিউ পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হবে। ১২০ নম্বরের এমসিকিউ পদ্ধতির এবং এসএসসি/এইচএসসি পরীক্ষায় প্রাপ্ত ফল হতে (৩০+৫০) = ৮০ নম্বর যোগ করে মেধাতালিকা প্রকাশ করে ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে। ভর্তি পরীক্ষায় প্রতিটি ভুল প্রশ্নের উত্তর প্রদানের জন্য ০.৩০ নম্বর কর্তন করা হবে।
ভর্তি পরীক্ষায় প্রবেশপত্র ডাউনলোড করে দুইটি কপি সংঘে নিয়ে আসতে হবে, একটি কপি পরীক্ষা পরিদর্শনের নিকট জমা দিতে হবে এবং অন্য একটি কপি প্রার্থীদের কাছে রাখতে হবে।
ভর্তি পরীক্ষায় বৃত্ত ভরাট কালো বলপেন দ্বারা অবশ্যই পূরণ করতে হবে। ত্রুটিপূর্ণ আবেদন ভর্তির জন্য বিবেচনা করা হবে না।
রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে নির্দিষ্ট কোটা সমূহ: মুক্তিযোদ্ধা কোটা (মুক্তিযোদ্ধা পোষ্য বা তদপোষ্য, শারীরিক প্রতিবন্ধী কোটা, উপজাতি কোটা।

মন্তব্য