শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স ১ম বর্ষ ২০২০-২০২১ইং শিক্ষাবর্ষে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে। শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২টি ইউনিটে ২৮টি বিষয়ের উপর ছাত্র/ছাত্রীরা ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবে। ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১৯, ২৬ জুন ও ৩ জুলাই ২০২১ইং তারিখ অনুষ্ঠিত হবে।

 


ভর্তি পরীক্ষার জন্য অনলাইনে প্রাথমিক আবেদন শুরু = ০১ এপ্রিল ২০২১ইং
ভর্তি পরীক্ষার জন্য অনলাইনে প্রাথমিক আবেদন শেষ = ১৫ এপ্রিল ২০২১ইং
প্রাথমিক ভর্তি পরীক্ষার রেজাল্ড = ২৩ এপ্রিল ২০২১ইং
দ্বিতীয় পর্যায়ের চূড়ান্ত আবেদন শুরু = ২৪ এপ্রিল ২০২১ইং
দ্বিতীয় পর্যায়ের চূড়ান্ত আবেদন শেষ = ২৫ মে ২০২১ইং
দ্বিতীয় পর্যায়ের অনলাইনে আবেদন ফি = ৬০০ টাকা
ভর্তি পরীক্ষার তারিখ = ১৯, ২৬ জুন এবং ৩ জুলাই ২০২১ইং

 


কোটা ভিত্তিক আসন সংখ্যা:
মুক্তিযোদ্ধার সন্তান = ২৮ জন
ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী/জাতিসত্ত্বা/হরিজন-দলিত = ২৮ জন
প্রতিবন্ধী = ১৪ জন
চা-শ্রমিক = ০৪ জন
পোষ্য = ২০ জন
বিকেএসপি কোটায় = ০৬ জন
সর্বমোট = ১০০টি আসন কোটা ভিত্তিক সংরক্ষিত রয়েছে।
ভর্তির যোগ্যতা:
যে সকল ছাত্র/ছাত্রী ২০১৭/২০১৮ সালে এসএসসি/সমমান (সাধারণ ও কারিগরি)আলিম/ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। এবং নূন্যতম জিপিএ ৩.৫০ (চতুর্থ বিষয় ব্যতীত) জিপিএ পেয়েছে সে সকল ছাত্র/ছাত্রীরা ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবে।
২০১৯/২০২০ সালের উচ্চমাধ্যমিক/কারিগরি শাখা/আলিম/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে এবং উভয় পরীক্ষায় পৃথকভাবে জিপিএ ৩.৫০ সহ সর্বমোট জিপিএ ৭.০০ (চতুর্থ বিষয় ব্যতীত) থাকতে হবে। বিজ্ঞান শাখা ব্যতীত সকল ছাত্র/ছাত্রী মাধ্যমিক বা উচ্চমাধ্যমিকের ছাত্র/ছাত্রীরা এ-ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবে।
যে সকল প্রার্থীরা শুধুমাত্র বিজ্ঞান শাখা থেকে এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় পাশ করেছে সে সকল ছাত্র/ছাত্রীরা এ-ইউনিট, বি-ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবে।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে যে সকল ছাত্র/ছাত্রী তাদের পছন্দনীয় বিষয়ের উপর ভর্তি হতে পারবে এবং কতটি আসন নির্ধারিত তা নিম্নে দেওয়া হলো।

 ইউনিট বিষয় আসন সংখ্যা
এ-ইউনিট অর্থনীতি, সমাজবিজ্ঞান, পলিটিক্যাল স্টাডিজ, লোক প্রশাসন, নৃ-বিজ্ঞান, সমাজকর্ম, ব্যবসায় প্রশাসন, ইংরেজী এবং বালা ৬১৩ জন 
বি-ইউনিট পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত, পরিসংখ্যান, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার্রিং এন্ড পলিমার সায়েন্স, ইন্ডাস্ট্রিয়াল এন্ড প্রডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং, সিভিল এন্ড এনভায়রনমেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টি টেকনোলজি, পেট্রোলিয়াম এন্ড মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং, ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, সমুদ্রবিজ্ঞান, সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং, জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি, বায়োকেমিস্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি, ফরেস্ট্রি এন্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স এবং আর্কিটেকচার ৯৯০ জন


ভর্তি পরীক্ষা বহুনির্বাচনী অর্থ্যাৎ (এমসিকিউ) পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হবে। পাস নম্বর ৪০ নির্ধারন করা হয়েছে। প্রতিটি ভুল উত্তর প্রদানের জন্য ০.২৫ নম্বর কর্তন করে এবং এসএসসি বা উচ্চমাধ্যমিকের জিপিএর উপর ৪০% ও ৬০% স্কোর যোগ করে ভর্তি পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর সমন্বয় করে মেধাতালিকা প্রকাশ করা হবে।

মন্তব্য