চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক ২০২০-২০২১ শিক্ষা বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা ২২ জুন অনুষ্ঠিত হবে। পবিত্র ঈদুল ফিতর আগামী ১৩ বা ১৪ মে উদযাপিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী ২২ জুন থেকে ০১ জুলাই মাসে চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্যাম্পাসে ২০২০-২০২১ শিক্ষা বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হবে।

১০ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনস কমিটির সভায় জুন মাসে পরীক্ষা আয়োজনের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। 

 

 

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য দপ্তরের সম্মেলকক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন উপাচার্য শিরীন আখতার। সভায় ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতি ও কর্মপরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা হয়। 

ভর্তি পরীক্ষার সময়সূচি:

ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু ০৫ এপ্রিল ২০২১ইং

আবেদনের শেষ তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২১ইং

ভর্তি পরীক্ষার আবেদন ফি = ৬৫০ টাকা

ভর্তি পরীক্ষা শুরু ২২ জুন থেকে ০১ জুলাই ২০২১ইং

ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন এসএম সালাতম উল্যা ভূঁইয়া বলেন ১৪ এপ্রিল থেকে রমজান শুরু হতে পারে। আর ১৩ কিংবা ১৪ মে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে। ২০ মে পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে ঈদের ছুটি। এরপর মে মাসের তৃতীয় সপ্তাহে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে ঠিক কোন তারিখে শুরু হবে, তা জানা যাবে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য পর্যদের সভা শেষে। 

বিশ্ববিদ্যালয় কমিটির সভা সূত্র জানায় করোনার প্রকোপ না কমলেও সরাসরি পরীক্ষা নেবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। পরীক্ষা ক্যাম্পাসেই হবে। ১০০ নম্বর নৈর্ব্যত্তিক প্রশ্ন, আর ২০ নম্বর যোগ হয় এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ থেকে। তবে এবার ২০ নম্বর ঠিক কীভাবে যোগ হবে, সে বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি। অবশ্য বাকি ২০ নম্বর কীভাবে যুক্ত হবে, পরীক্ষা কত দিনে হবে, আবেদনের যোগ্যতা কী হবে-এ বিষয়ে ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এছাড়া এবার আসন বাড়বে বা কমবে কি না, সে সিদ্ধান্ত আসবে ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সভায়।

 

 

গত বছর ৪টি ইউনিট ও ২টি উপ-ইউনিটের ভর্তি কার্যক্রম হয়েছে। ৪৮টি বিভাগ ও ৬টি ইনস্টিটিউটে ৪ হাজার ৯২৬টি আসনে শিক্ষার্থীরা ভর্তি হন। প্রতি আসনে আবেদন করেছিলেন ৫২ জন শিক্ষার্থী। 

বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষদ আছে ৯টি, বিভাগ ৪৮টি ও ইনস্টিটিউট রয়েছে ৬টি। 

বিজ্ঞান অনুষদের ডিন মোহাম্মদ নাসিম হাসান বলেন, ঈদের আগে ভর্তি পরীক্ষা হচ্ছে না, ঈদের পরেই হবে। এছাড়া ভর্তি পরীক্ষা আয়োজনের যাবতীয় প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। পরীক্ষার তারিখ ঠিক হবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপাচার্য পর্ষদের সভায়।

ইউনিট ভিত্তিক অনুষদ 

এ ইউনিট (A unit): বিজ্ঞান অনুষদের সকল বিভাগ/ইন্সটিটিউট, জীববিজ্ঞান অনুষদের সকল বিভাগ, ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের সকল বিভাগ/ইন্সটিটিউট। 

বি ইউনিট (B unit): কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের সকল বিভাগ। কিন্তু এর মধ্যে কিছু বিভাগ বি ইউনিটের আওতায় থাকবে না। যেমন নাট্যকলা বিভাগ, চারুকলা ইন্সটিটিউট, সংগীত বিভাগ। 

সি ইউনিট (C unit): ব্যবসা অনুষদের সকল বিভাগ। 

ডি ইউনিট (D unit): সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের সকল বিভাগ, আইন অনুষদের সকল বিভাগ, ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যা বিভাগ, মনোবিজ্ঞান বিভাগ।

ভর্তি পরীক্ষার সময়সমূচি: 

বি-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা = ২২ ও ২৩ জুন ২০২১ইং

ডি-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা = ২৪ ও ২৫ জুন ২০২১ইং

এ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা = ২৮ ও ২৯ জুন = ২০২১ইং

সি-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা = ৩০ জুন = ২০২১ইং

বি-১ ও ডি-১ উপ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা = ১ লা জুলাই = ২০২১ইং

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির প্রতি ইউনিটের নূন্যতম যোগ্যতা 

যে সকল শিক্ষার্থী ২০১৭ বা ২০১৮ সালে এসএসসি-সমমান এবং ২০২০ সালে এইচএসসি-সমমান পরীক্ষার্থীয় উত্তীর্ণ হয়েছে, একমাত্র সেই সকল শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। এছাড়া রেজাল্ডের উপর ইউনিট ভিত্তিক যে যোগ্যতা: 

এ ইউনিট (A Unit): এসএসসি ও এইচএসসি-সমমান পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়সহ মোট জিপিএ-৭.৫০। এছাড়া প্রত্যেক বোর্ড পরীক্ষায় আলাদা আলাদা ভাবে অবশ্যই নূন্যতম ৩.৫০ থাকতে হবে। 

বি ইউনিট: (B Unit): বিজ্ঞান-কৃষি বিজ্ঞান- ব্যবসায় শিক্ষা শাখার ক্ষেত্রে, এসএসসি ও এইচএসসি-সমমান পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়সহ মোট জিপিএ-৭.০০। এছাড়া প্রত্যেক বোর্ড পরীক্ষায় আলাদা আলাদা ভাবে নূন্যতম ৩.২৫ থাকতে হবে। 

মানবিক/সাধারণ (মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড) শাখার ক্ষেত্রে, এসএসসি ও এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়সহ মোট জিপিএ-৬.৫০ এবং উভয় পরীক্ষায় নূন্যতম ২.৭৫ থাকতে হবে। 

বি১ উপ-ইউনিট (B1 Unit): বিজ্ঞান/কৃষি বিজ্ঞান/ব্যবসায় শিক্ষা শাখার ক্ষেত্রে, এসএসসি ও এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়সহ মোট জিপিএ-৭.০০। এছাড়া প্রত্যেক বোর্ড পরীক্ষায় আলাদা আলাদা ভাবে নূন্যতম ৩.২৫ থাকতে হবে। 

মানবিক/সাধারণ (মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড) শাখার ক্ষেত্রে, এসএসসি ও এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়সহ মোট জিপিএ-৬.৫০ এবং উভয় পরীক্ষায় নূন্যতম ২.৭৫ থাকতে হবে। 

সি ইউনিট (C Unit): এসএসসি ও এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়সহ মোট জিপিএ-৭.৫০। এছাড়া প্রত্যেক বোর্ড পরীক্ষায় আলাদা আলাদা ভাবে অবশ্যই নূন্যতম ৩.৫০ থাকতে হবে। 

ডিপ্লোমা ইন কমার্স/ ডিপ্লোমা ইন বিজনেস স্টাডিজ/ডিপ্লোমা ইন বিজনেস ম্যানেজমেন্ট শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রেও একই যোগ্যতা। 

ডি ইউনিট (D Unit): এসএসসি ও এইচএসসি/ সমমান পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়সহ মোট জিপিএ-৭০০। এছাড়া প্রত্যেক বোর্ড পরীক্ষায় আলাদা আলাদা ভাবে নূন্যতম ৩.২৫ থাকতে হবে। 

Chittagonj University Notic

ভর্তি পরীক্ষার নম্বর বন্টন ও যাবতীয় তথ্য 

১০০ নম্বরের উপর এক ঘন্টা পরীক্ষা হবে। আর এমসিকিউ এর উপর শুধুমাত্র পরীক্ষা হবে। শুধুমাত্র নাট্যকলা বিভাগ, চারুকলা ইন্সটিটিউট এবং ফিজিক্যাল এডুকেশন এন্ড স্পোর্টস সায়েন্স এর ক্ষেত্রে এমসিকিউ এর পাশাপাশি ব্যবহারিক পদ্ধতি থাকবে। 

প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর করে কাটা যাবে। এসএসসি ও এইচএসসি রেজাল্টের উপর ২০ নম্বর বরাদ্দ থাকবে অর্থাৎ ভর্তি পরীক্ষায় মোট ১২০ নম্বরে ভর্তি পরীক্ষা হবে। ২০ নম্বর নেওয়া হবে এসএসসির ৪০% এবং এইচএসসি ৬০%। 

বি১ উপ-ইউনিটে ১২০ নম্বরের সাথে আলাদা ভাবে ২০ নম্বরের ব্যবহারিক পরীক্ষা হবে। অর্থাৎ বি১ উপ-ইউনিটে সর্বমোট নম্বর ১৪০। আর ডি ইউনিটে ব্যবহারিক নম্বর ৩০, সর্বমোট ১৫০ নম্বরে পরীক্ষা হবে। 

মন্তব্য